in

LoveLove CuteCute

শাওমি জাম্বো কালারফুল জেল ইংক পেন

নিঁখুত লেখা, মেয়াদও চারগুণ

Xiaomi Jumbo Colorful Gel Ink Pen Review

কলম নিয়ে এত ভাবনার কি আছে? প্রশ্নটা স্বাভাবিক। উত্তরটাও জানা। পেন্সিলের ক্ষেত্রে এইচবি, টুবি, থ্রিবি পেন্সিলের ফারাকটা বুঝে দেখেন? কলমের ক্ষেত্রে পার্থক্যটা কোথায়? এখানেই বৈচিত্র‍্য। কলমের নিব, কালির ধরন, আর্গোনোমিক অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়ায়। এখন তথ্য-প্রযুক্তির যুগে পেশাদার জগতে লেখালেখি পৌছে গেছে। ছবি, ডিজাইন, প্রেজেন্টেশন থেকে শুরু করে নোট সবকিছুতেই প্রয়োজন হয় ভালো কলম, হাইলাইটার বা কালার পেন। ব্যবহার যেমনই হোক, পিনপয়েন্ট বা জেল পেনের মাধ্যমে সব লেখার কাজ সম্ভব না।

পাঁচ টাকা কিংবা দশ টাকার কলমের বদলে নোট বা গুরুত্বপূর্ণ কাজে ভালো কলম প্রয়োজন হবেই। কালার পেনের ব্যবহারে অনেকে পেন আর্ট করেন, নোট করেন। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে কলমের কালি ম্লান হতে শুরু করে। এই ম্লানভাবের কারণে অনেক সময় নোটের প্রাথমিক উপযোগীতাও নষ্ট হয়। সমস্যাটি কেন হয়?

সমস্যাটি হয় পিগমেন্টেশনের অভাবের কারণে। প্রিন্ট করলে কালির পিগমেন্টেশন আর কলমের কালির পিগমেন্টেশন একই রকম হয় না। কিন্তু আমি যদি বলি এমন একটি কলম আছে যা অনেকটা প্রিন্টের মতোই পিগমেন্টেশন সরবরাহ করে। না, বাড়িয়ে বলছি না।

শাওমি এমআই জাম্বো কালারফুল জেল ইংক পেন তেমনই একটি পণ্য। শাওমির স্টেশনারি অনেক পণ্যও রয়েছে। স্টেশনারি পণ্যের মধ্যে এটি একটি অনন্য সংযোজন।

পাঁচশো টাকার প্রায় কাছাকাছি দামের এই জেল পেনের সেট কেনই বা কিনবেন? সাধারন জেল পেনের সেটই তো এনাফ৷ তাই না? সেটা নির্ভর করে আপনার প্রয়োজনের উপর। তবে আমরা এখানে কিছু বিষয় তুলে ধরতে পারি। তারপর সিদ্ধান্ত আপনাদের।

শাওমি জাম্বো কালারফুল জেল ইংক পেন

শাওমির এই পণ্যটিতে জেল ইংক ব্যবহার করা হয়েছে। কালিটিই মূলত এর বিশেষ বৈশিষ্ঠ্য। তবে কালি ছাড়াও এর আরো কিছু ভালো দিক রয়েছে। শুধু কালির দোহাই দিয়ে তো আর পণ্যের বিকিকিনিতে মানুষকে কনভিন্স করা সম্ভব না। তাই এই রিভিউতে কলমের সেটটি কেনার বিস্তারিত ব্যখ্যা দেয়া হলো।

সানকোকু কালির চমক

স্টেশনারি পণ্যের ক্ষেত্রে জাপানের খ্যাতি বহুদিনের। জাপানের ইকেবানা চক পশ্চিমা দুনিয়ায় ইতোমধ্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। জাপানের কালিও অসাধারণ। বিভিন্ন নামের ও ঘরানার কালি তারা ক্লাসিফিকেশন করে ফেলেছে। আর এই ক্লাসিফিকেশন ভালো কারণ প্রতিটি কালির সতন্ত্র বৈশিষ্ঠ্য থাকে।

শাওমি এই জেল পেন সেটে সানকোকু কালি ব্যবহার করেছে। সানকোকু কালির মূল বৈশিষ্ঠ্য পিগমেন্টেশনে। সাধারন জেল পেন দিয়ে লিখে দেখুন, প্রথম গাঢ় রঙে লেখা আসবে। তারপর শুকিয়ে গেলেই কালি কিছুটা ম্লান রঙের হয়ে যায়। কিন্তু এই জেল পেনের পিগমেন্ট ম্লান হয় না। বরং প্রথমেও যেমন থাকে শেষেও একই রকম থাকবে।

সানকোকু রঙের এই বিশেষ দিক এই কালির পিগমেন্টেশন প্রিন্টারের কালিতে কেমন তা তো খেয়াল করেছেন। রঙগুলো ঝকঝকে থাকে। কলমে তো এমন উজ্জ্বল রঙ পাওয়া যায় না। তবে শাওমির এই কলমে এমন ঝকঝকে-তকতকে রঙ ঠিকই পাওয়া যাবে। কালির জায়গাটি অবশ্যই এই কলমের প্রথম ভালো দিক।

গড়ন শক্তপোক্ত

এত দাম দিয়ে কলম কিনবেন তাই সঙ্গত কারণেই প্রত্যাশা থাকবে কলমটি অনেকদিন ব্যবহার করতে চাইবেন। কিন্তু জেল পেনের ক্ষেত্রে দেখা যায়, কলমে একটু টোকা লাগলে বা ঝাকি খেলেও কলমের আউটপুট খারাপ হয়ে যায়।

অনেক সময় হাত থেকে কলম মাটিতে পড়ে গেলে নিব থেকে কালি বের হয় না। শাওমি এদিকে কলমের কনস্ট্রাকশনে গুরুত্ব দিয়েছে। তাই হাত থেকে পড়ে গেলে বা পকেটে রাখলেও কালি বের হওয়া বা নিবের ক্ষতি হওয়ার সুযোগ নেই।

আউটপুট স্মুথ

জেল পেন হলে কালিও হয় মোটা। তবে চীনা অনেক কলমেই ০.৫ মি.মি. নিব ব্যবহৃত হয়। এই কলমেও তেমনই প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। ফলে কলম দিয়ে লিখলে দাগ হয় সরু। আর পিনপয়েন্টের মতোই দেখায়। পার্থক্য হলো কালি বা লেখা হয় গাঢ় ও সুন্দর। স্পষ্ট ঝকঝকে দেখায় সবকিছু।

কালি ছড়ায় না

প্রথমেই বলেছি, ০.৫ মি.মি. আউটপুট হওয়ায় দাগ হয় সরু। আর কালিও ছড়ায় না। তাই এই জেল ব্যবহার করে আরাম পাওয়া যায়। সবচেয়ে ভালোভাবে ব্যবহার করা যা স্কেচের কাজে। স্কেচের ক্ষেত্রে কালি সরু ও উজ্জ্বল হওয়ায় প্রফেশনাল ক্ষেত্রেও ব্যবহার করা সম্ভব।

যেহেতু কালি ছড়িয়ে যায় না তাই হাতে কালি ছড়িয়ে পড়া, হাত নোংরা হওয়া এবং কাগজে কালি ছড়িয়ে যাওয়ার মতো সমস্যা দেখা দেয় না। কাগজে ছড়িয়ে যাওয়া, কালি দেরিতে শুকোনো এবং হাতে লেগে যাওয়া- এই তিন সমস্যার কারণে কাগজের ওপর দাগ পড়ে যেতেই পারে। এখন অন্তত সেই ভয় নেই।

চারগুণ বেশি সময় টিকে

আউটপুট ০.৫ মি.মি.। তাই কালি বের হয় কম। কালির কোয়ালিটিও ভালো। তায় জেল পেন। ফলে এই জেল পেনের সেট টিকেও বেশি সময়। অন্য জেল পেনের তুলনায় চারগুণ বেশি সময় টিকে।

অন্যান্য জেলে কালি ছড়িয়ে পড়ে। তাই অপচয়ের কারণেও খরচ হয় অনেক। সেখানে এই জেলে অপচয়ের বালাই নেই বিধায় সেটাও উপকারি দিক। অর্থাৎ শাওমির দাবি ফেলনা নয়।

কলম নিয়ে বাড়তি আর কি বলার আছে। তবে উপকারি যে দিকগুলোর কথা বলেছি সেগুলো অনেকেই বুঝতে পেরেছেন। এই সময়ে স্কেচ করেন যারা, প্রেজেন্টেশন বা নোট করেন যারা তারা ঠিকই এই কলমের গুরুত্ব বুঝতে পারবেন।

What do you think?

Written by আমিরুল আবেদিন আকাশ

পেশাগত জীবনে আমি একজন সাংবাদিক। শিক্ষাজীবন এখনও শেষ করিনি। এরইমধ্যে একটি পত্রিকায় চাকরি এবং বই অনুবাদ করছি। ইংরেজি কন্টেন্ট লেখার অভিজ্ঞতা থাকায় বাংলায় তথ্যবহুল লেখা প্রচার-প্রসারের আগ্রহ থেকেই বিভিন্ন বিষয়ে লেখালেখি করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

GIPHY App Key not set. Please check settings

bulletproof coffee for weight lose

ওজন কমাতে বুলেটপ্রুফ কফি? জেনে নিন এর উপকারিতা ও অপকারিতা

চুল ভালো রাখার উপায়

চুল ভালো রাখার ৭টি উপায়